CLASS-X

চল তড়িৎ-দশম শ্রেণি (class 10) -ভৌত বিজ্ঞান

SHARE

1. চল তড়িৎ-দশম শ্রেণি-সঠিক উত্তরটি বেছে নাও।

চল তড়িৎ-দশম শ্রেণি

1.1 রোধাঙ্কের SI একক হল-       a) Ωcm         b) Ωm         c)Ω         d) Ω-1
সঠিক উত্তর-  b) Ωm

1.2 রোধের SI হল-       a)  A          b) V            c) Ω      d) C
সঠিক উত্তর- c) Ω

1.3 বৈদ্যুতিক ডায়নামো কোন ভিতত্তিতে কাজ করে?           a) তড়িৎ প্রবাহের ওপর চুম্বক ক্রিয়া     b) চুম্বকের ওপর তড়িৎ প্রবাহের ক্রিয়া    c) তড়িৎ আবেশ    d) তড়িৎ প্রবাহের ওপর তাপীয় ফল
সঠিক উত্তর- c) তড়িৎ আবেশ

1.4 নিম্ন লিখিত ভৌত রাশিগুলির মধ্যে অ্যাম্পিয়ার কোনটি?              a) কুলম্ব-সেকেন্ড     b) ভোল্ট-ওহম-1    c) ভোল্ট-ওহম    d) ভোল্ট-1 -ওহম
সঠিক উত্তর- b) ভোল্ট-ওহম-1

1.5 কোনো পরিবাহীর দৈর্ঘ্য টেনে দ্বিগুণ করা হলে রোধাঙ্ক হবে-             a)দ্বিগুণ         b) চারগুণ          c) অর্ধেক            d) অপরিবর্তিত
সঠিক উত্তর- d) অপরিবর্তিত

1.6 কিলোওয়াট-ঘন্টা দ্বারা সে ভৌতরাশি পরিমাপ করা হয় তা হল?   a) তড়িৎ শক্তি      b)তড়িৎ ক্ষমতা    c) তড়িৎ প্রবাহমাত্রা      d) তড়িৎ আধান
সঠিক উত্তর- a) তড়িৎ শক্তি

1.7 ফ্লেমিং-এর বাম হস্ত নীতি দিয়ে ব্যাখ্যা করা যায়-   a) ফিলামেন্ট বাল্ব      b) ডায়ানোমো      c) কুলম্বীয় বলের অভিমুখ     d) DC মোটরের ঘূর্ণন
সঠিক উত্তর- d) DC মোটরের ঘূর্ণন 

1.8 নীচের একক গুলির মধ্যে কোনটি রোধের SI একক?      a) ভোল্ট           b) অ্যাম্পিয়ার              c) কুলম্ব     d)ওহম
সঠিক উত্তর-  d)ওহম

1.9 গৃহস্থালির বৈদ্যুতিক বর্তনীতে ফিউজ তার নিচের  কোনটির সঙ্গে যুক্ত থাকে?        a) আর্থলাইন      b) লাইভ লাইন         c) নিউট্রাল লাইন         d) লাইভ ও নিউট্রাল উভয় লাইন
সঠিক উত্তর- লাইভ লাইন

1.10 সমান ওয়াটের আলো নিঃসারকগুলির মধ্যে সর্বাধিক শক্তি সাশ্রয়কারী হল-            a) CFL        b) LED          c) ভাস্বর বাল্ব           d) টিউবলাইট
সঠিক উত্তর- b) LED

1.11 2Ω ও 3Ω রোধের সমান্তরাল সমবায় তুল্য রোধ হল          a) 1.2Ω   b) ⅚ Ω    c) 2.1 Ω      d) 2.5Ω
সঠিক উত্তর- a) ⅚ Ω
ব্যাখ্যা- (\frac{1}{2}+\frac{1}{3}{)}^{-1}\Omega             ={(\frac{6}{5})}^{-1}\Omega       =5/6\Omega

2. চল তড়িৎ-দশম শ্রেণি-অতি সংক্ষিপ্ত প্রশ্নোত্তর

চল তড়িৎ-দশম শ্রেণি

2.1  1 কুলম্বের সঙ্গে esu একক এর সম্পর্ক কী? => 1C=3\times10^9 esu

2.2 আধানের মাত্রীয় সংকেত লেখো।  => [IT]

2.3 সত্য/ মিথ্যা বলো: কুলম্বীয় বল সর্বদা বিকর্ষণধর্মী। => মিথ্যা

2.4 তড়িৎ বিভব কী রাশি? => এটি স্কেলার রাশি

2.5 V.C কোন ভৌত রাশির একক? => তড়িৎ শক্তি বা কৃতকার্য

2.6 বিভবের SI একককী? => ভোল্ট বা volt বা V

2.7 বিভবের CGS একক কী? => esu বিভব বা statvolt

2.8 1V=কত esu বিভব? => 1V=\frac{1}{300} esu বিভব

2.9 বিভবের মাত্রা কী? => [ML2T-3I-1]

2.10 বিভব কোন যন্ত্র দিয়া পরিমাপ করা হয়? =>  ভোল্টমিটার

2.11 EMF বা তড়িৎচালক বল মাপা হয় কোন যন্ত্রের সাহায্যে? => পোটেনশিওমিটার

2.12 তড়িচ্চালক বলের একক? =>ভোল্ট

2.13 সত্য/ মিথ্যা বলো: বিভব প্রভেদ সর্বদা EMF এর তুলনায় কম হয়। => সত্য

2.14 প্রবাহমাত্রা কী রাশি? => স্কেলার রাশি।

2.15 তড়িৎ প্রবাহমাত্রার  ব্যাবহারিক বা SI একক কী? => C/s বা ampere বা A

2.16 তড়িৎ প্রবাহ যাত্রার cgs একক কী? => biot

2.17 তড়িৎ প্রবাহমাত্রার মাত্রীয় সংকেত কী? => [I]

2.18 তড়িৎ প্রবাহ যাত্রা মাপার যন্ত্রের নাম কী? => অ্যামিটার (Ammeter)

2.19 রোধের SI একক কী? => ohm বা Ω বা V/A

2.20 ওহমের সুত্রানুসারে প্রবাহমাত্রা ও বিভবের লেখচিত্র কীরূপ? => মূলবিন্দুগামী সরলরেখা

2.21 200V-40W বাতির রোধ কত?
=> রোধ,  R=\frac{V^2}{P}=\frac{200^2}{400}\Omega=1000\Omega

2.22 রোধের অনোন্যককে কি রাশি বলে?  => তড়িৎ পরিবাহিতা বলে।

2.23 তড়িৎ পরিবাহিতার SI একক কী? => mho বা Ω-1

2.24 সাইমেন্স (siemens) কীসের একক?=> এটিও তড়িৎ পরিবাহিতার একক।

2.25 রোধাঙ্কের SI একক কী? => Ω.m

2.26 রোধাঙ্কের অনন্যক কে কী রাশি বলে? => পরিবাহিতাঙ্ক।

2.27 তড়িৎ পরিবাহিতাঙ্কের SI একক কী? => Ω-1m-1

2.28 রোধাঙ্কের মান কোন কোন বিষয়ের উপর নির্ভর করে? => উষ্ণতা এবং পদার্থের গঠনের ওপর নির্ভর করে।

2.29 আদর্শ পরিবাহির রোধাঙ্কের মান কত? => শূন্য

2.30 আদর্শ অন্তরকের রোধাঙ্কের মান কত? => অসীম

2.31 উষ্ণতা বৃদ্ধিতে  সাধারণ পরিবাহির রোধাঙ্ক বাড়ে না কমে? => বাড়ে

2.32 উষ্ণতা পরিবর্তনে সাধারণ পরিবাহীর রোধাঙ্ক কীভাবে পরিবর্তিত হয় তার লেখচিত্র অঙ্কণ কর।

=>

উষ্ণতা পরিবর্তনে সাধারণ পরিবাহীর রোধাঙ্ক কীভাবে পরিবর্তিত হয় তার লেখচিত্র অঙ্কণ কর।
উষ্ণতা পরিবর্তনে সাধারণ পরিবাহীর রোধাঙ্কের পরিবর্তন

2.33 ওহমের সূত্র মানে না এমন একটি উপাদানের উদাহরণ দাও। => সিলিকন

2.34 অওহমীয় পরিবাহীর রোধাঙ্ক উষ্ণতার সঙ্গে কীভাবে পরিবর্তিত হয়? =>উষ্ণতা বৃদ্ধিতে অওহমীয় পরিবাহীর রোধাঙ্ক হ্রাস পায়।

2.35 দুটি অর্ধ পরিবাহির উদাহরণ দাও। => সিলিকন, জার্মেনিয়াম

2.36 উষ্ণতা বৃদ্ধিতে অর্ধপরিবাহীর রোধাঙ্ক বাড়ে না কমে? => কমে যায়

2.37 উষ্ণতা পরিবর্তনে  অর্ধপরিবাহীর রোধাঙ্ক কীভাবে পরিবর্তিত হয় তার লেখচিত্র অঙ্কণ কর।
=>

উষ্ণতা পরিবর্তনে  অর্ধপরিবাহীর রোধাঙ্ক কীভাবে পরিবর্তিত হয় তার লেখচিত্র অঙ্কণ কর।
উষ্ণতা পরিবর্তনে অর্ধপরিবাহীর রোধাঙ্কের পরিবর্তন

2.38 একটি তারকে কেটে সমান দু টুকরো করা হল। তারটির উপাদানের রোধের কী পরিবর্তন হবে? => অর্ধেক হবে

2.39 একটি পরিবাহির তারকে সমান দুইভাগে ভাগ করলে তারটির রোধাঙ্কের কী পরিবর্তন হবে? => একই থাকবে।

2.40 গৃহবর্তনীতে বিভিন্ন বৈদ্যুতিক যন্ত্রগুলি কোন সমবায়ে যুক্ত থাকে? => সমান্তরাল সমবায়ে।

2.41 বার্লোচক্রের ঘূর্ণনের অভিমুখ কীভাবে বদলাবে? => তড়িৎ প্রবাহের অভিমুখ বা চুম্বকক্ষেত্রের অভিমুখ পাল্টালে।

2.42 আমরা ফিউজ কোথায় যুক্ত করি লাইভ তারের সঙ্গে না নিউট্রাল তারের সঙ্গে? => লাইভ তারের সঙ্গে

2.43 ওয়াট-ঘন্টা কোন ভৌত রাশির একক? => তড়িৎ শক্তি

2.44 1 ওয়াট-ঘন্টা কাকে বলে? => কোনো তড়িৎ যন্ত্র 1 জুল/সেকেন্ড  হারে  1 ঘন্টায় যে পরিমাণ মোট শক্তি ব্যয় করে তাকে এক ওয়াট-ঘন্টা বলে।

2.45 বৈদ্যুতিক বর্তনীতে সুইচকে কোন সমবায়ে যুক্ত করা হয়? => শ্রেণি সমবায়ে।

2.46 উষ্ণতার বৃদ্ধিতে অর্ধপরিবাহীর রোধ কিভাবে পরিবর্তিত হয়? =>উষ্ণতা বৃদ্ধিতে অর্ধপরিবাহীর রোধ ( রোধাঙ্ক) সূচকীয় হারে হ্রাস পায়

2.47 BOT কথাটির অর্থ কী? => Board of trade unit

2.48 1 BOT = কত জুল? => 1 BOT = 1 kWh = 3.6×106 J

2.49 CFL ও LED এর পুরো অর্থ কী?
=> CFL = Compact Fluorosecent Lamp, LED = Light Emitting Diode

2.50 বৈদ্যুতিক বাতিতে কোন গ্যাস থাকে?
=> ফিলামেন্ট বালবে থাকে নিষ্ক্রিয় গ্যাস। তবে নাইট্রোজেন গ্যাস থাকতে পারে ফিলামেন্ট বালবের ভিতর।
CFL বালবে আর্গন গ্যাসে সঙ্গে সামান্য পরিমাণ পারদ বাষ্প থাকে।

2.51 বৈদ্যুতিক বাতির ফিলামেন্ট কি দিয়ে তৈরি? => টাংস্টেন ধাতু দিয়ে তৈরি।

2.52 নাইক্রোম তার কী দিয়ে তৈরি? => নিকেল ( 80%), ক্রোমিয়াম (20%) ও  সামান্য পরিমাণ লোহা থাকতে পারে।

2.53 নাইক্রোম তারের বৈশিষ্ট্যগুলি লেখ। => উচ্চ রোধ ও উচ্চ গলনাঙ্ক।

2.54 নাইক্রোম তারের ব্যবহার কোথায় করা হয়? => ইলেকট্রিক হিটার, ইস্তিরি মেশিন ইত্যাদিতে।

2.55 ফিউজ তাররে উপাদানগুলি কী কী? => টিন ও সীসা।

2.56 ফিউজ তাররে বৈশিষ্ট্যগুলি কী কী? => উচ্চ রোধ ও নিম্ন গলনাঙ্ক

2.57 মোটর এর শক্তি কী কী উপায়ে বাড়ানো যায়?
=> তড়িৎ প্রবাহ বৃদ্ধি করে, শক্তিশালী চুম্বক ব্যবহার করে, কুণ্ডলীর পাক সংখ্যা বৃদ্ধিতে মোটরের গতি বাড়ানো যায়। 

2.58 বার্লোচক্রে কোন শক্তি কোন শক্তিতে রূপান্তরিত হয়? => তড়িৎশক্তি যান্ত্রিক শক্তিতে|

2.59 ডায়নামোতে কোন ধরনের শক্তি তড়িৎ শক্তিতে রূপান্তরিত হয়? => যান্ত্রিক শক্তি তড়িৎ  শক্তিতে পরিণত হয়।

3. চল তড়িৎ-দশম শ্রেণি-সংক্ষিপ্ত প্রশ্নোত্তর

চল তড়িৎ-দশম শ্রেণি

3.1 কুলম্বের সূত্রটি লেখ।
=> দুটি বিন্দু আধানের মধ্যে ক্রিয়ারত আকর্ষণ বা বিকর্ষণ বল আধান দুটির গুণফল এর সমানুপাতি ও দূরত্বের বর্গের ব্যস্তানুপাতী।

3.2 কুলম্বের সূত্রের গাণিতিক রূপটি লেখ।
=> {q}_{1}{q}_{2} দুটি বিন্দু আধানের মধ্যে দূরত্ব d হলে এদের মধ্যে ক্রিয়াশীল কুলম্বীয় বল,
F = k\frac{{q}_{1}{q}_{2}}{d^2} যেখানে শূন্য মাধ্যের ক্ষেত্রে k এর মান 9×109 Nm2C-2

3.3 1 কুলম্বের সংজ্ঞা দাও।
=>
শূন্য মাধ্যমে রক্ষিত দুটি সমান্তরাল পরিবাহীর মধ্যে দূরত্ব 1m হলে প্রতি সেকেন্ডে যে পরিমাণ আধান প্রবাহের জন্য তারের প্রতি একক দৈর্ঘ্যে 2\times 10^{-7}N বল ক্রিয়া করবে তাকে 1 কুলম্ব বলে।

3.4 কুলম্বের সূত্র কোন কোন ক্ষেত্রে প্রযোজ্য? বা কুলম্বের সূত্রের সীমাবদ্ধতা কী?
=> দুটি বিন্দু আধানের ক্ষেত্রে।  দুটি আধানের মধ্যে ন্যূনতম দূরত্ব 10^{-15} m থেকে অসীম দূরত্ব পর্যন্ত।

3.5 তড়িৎ বিভব কাকে বলে?
=> একক ধনাত্মক কোন আধান কে অসীম থেকে তড়িৎ ক্ষেত্রের কোন বিন্দুতে আনতে যে পরিমাণ কার্য করা হয় তাকে ওই বিন্দুর তড়িৎ বিভব বলে।

3.6 1 volt কাকে বলে?
=> 1 কুলম আধানকে যদি একবিন্দু থেকে অন্য বিন্দুতে নিয়ে যেতে 1 জুল কার্য করতে হয়। তাহলে একে 1 volt বলে।

3.7 বিভবের মাত্রা নির্ণয় কর।
=> বিভবের মাত্রা = \frac{কার্যের\, মাত্রা}{আধানের\, মাত্রা}=[\frac{ML^{2}T^{-2}}{IT}]=[ML^{2}T^{-3}I^{-1}]

3.8 তড়িচ্চালক বল কাকে বলে?
=> তড়িৎ কোষের ঋণাত্মক প্রান্ত থেকে ধনাত্মক প্রান্তের দিকে একক ধনাত্মক আধান কে নিয়ে যেতে যে পরিমাণ কার্য করা হয় তাকে তড়িচ্চালক বল বলে।

3.9 অভ্যন্তরীণ রোধ কাকে বলে?
=> তড়িৎ কোশের অভ্যন্তরে তরল পদার্থ বা অন্যান্য পরিবাহী বস্তুর জন্য তড়িৎ প্রবাহে কিছুটা বাঁধার সৃষ্টি হয় একে অভ্যন্তরীণ রোধ বলে।

3.10 তড়িচ্চালক বল ও অভ্যন্তরীণ রোধের মধ্যে সম্পর্ক প্রতিষ্ঠা কর।
=>অভ্যন্তরীণ রোধ-চল তড়িৎ-দশম শ্রেণি

ধরি, কোনো তড়িৎ কোশের তডিচ্চালক বল E ও অভ্যন্তরীণ রোধ r। তড়িৎ কোশটিকে R রোধের সঙ্গে যুক্ত করা হল ফলে প্রবাহমাত্রা হবে I। এই I প্রবাহ R ও r উভয়ই রোধ দিয়ে যাবে।
ওহমের সূত্র থেকে পাই,
E=I(R+r)  or, I=\frac{E}{R+r}

3.11 তড়িৎকোশের নষ্ট ভোল্ট কাকে বলে?
=> অভ্যন্তরীণ রোধের জন্য তড়িৎ কোশের তড়িচ্চালক বলের মান কিছুটা কমে যায় যে পরিমাণ বিভব কমে যায় তাকে নষ্ট ভোল্ট বলে । Ir দ্বারা নষ্ট ভোল্ট পরিমাপ করা হয়। যেখানে, I তড়িৎ প্রবাহ, r অভ্যন্তরীণ রোধ।

3.12 তড়িচ্চালক বল ও বিভব পার্থক্যের মধ্যে পার্থক্য লেখ।
=>

তড়িচ্চালক বলবিভব
i) তড়িৎ কোষের দুই তড়িৎ দ্বারে মাপা হয়i) তড়িৎ বর্তনীর যে কোনো দুটি বিন্দুর মধ্যে মাপা হয়
ii) এটি কারণii) এটি ফল
iii) এর মান বিভবের থেকে বেশি হয়iii) এর মান তড়িচ্চালক বলের থেকে কম হয়
iv) পোটেনশিওমিটার দিয়ে মাপা হয়iv) ভোল্টমিটার দিয়ে মাপা হয়।

3.13  কোন শর্তে তড়িচ্চালক বল ও বিভব প্রভেদ এর মান সমান হয়?
=> যদি তড়িৎ কোষের অভ্যন্তরীণ রোধ শূন্য হয় তাহলে তড়িৎচালক বল ও বিভব প্রভেদ সমান হয়।

3.14 আবিষ্ট তড়িচ্চালক বল কাকে বলে?
=> বদ্ধ কুন্ডলীতে চৌম্বক প্রবাহের (ফ্লাক্সের পরিবর্তন) জন্য যে বিভব সৃষ্টি হয় তাকে আবিষ্ট তড়িচ্চালক বলে।

3.15 তড়িৎ প্রবাহমাত্রা কাকে বলে?
=> কোনো পরিবাহী দিয়ে একক সময়ে যে পরিমাণ আধান প্রবাহিত হয় তাকে তড়িৎ প্রবাহমাত্রা বলে।

3.16 ওহ্‌মের সূত্রটি বিবৃত কর  এবং ওহমের সূত্রের গাণিতিক রূপটি লেখ।
=> উষ্ণতা ও অন্যান্য ভৌত অবস্থা অপরিবর্তিত থাকলে তড়িৎপ্রবাহমাত্রা (I) ও পরিবাহির দুই প্রান্তের বিভবপ্রভেদ (V) পরস্পর সমানুপাতী হয়।
গাণিতিক রূপ: V∝I

3.17 5A তড়িৎ 2 মিনিট ধরে প্রবাহিত হলে কত আধান যায়?
=> প্রবাহমাত্রা I= \frac{Q}{t} or, Q=It= 5A×2 min= 5A×2×60s=100C

3.18 পরিবাহীর রোধ কাকে বলে?
=> যে রাশি দ্বারা তড়িৎ পরিবহনের বাধা নির্ণয় করা হয় তাকে পরিবাহীর রোধ বলে।

3.19 ওহমের সূত্র থেকে রোধের সংজ্ঞা দাও। রোধের SI একক কী?
=> কোন পরিবাহীর দুই প্রান্তের বিভব ও প্রবাহ মাত্রার অনুপাত কে ওই পরিবাহীর রোধ বলে। এর SI একক হল V/I বা ওহম (Ω)

3.20 রোধের মাত্রা নির্ণয় কর।
=>  R =\frac{V}{I}=[\frac{[ML^{2}T^{-3}I^{-1}}{I}]=[ML^{2}T^{-3}I^{-2}]

3.21 ওহমের সূত্রের সীমাবদ্ধতা গুলি কী কী?
=> কিছু বিশেষ পরিবাহী রয়েছে যারা অতি নিম্ন উষ্ণতায় ওহমের সূত্র মানে না। তাদের এই অবস্থাকে অতি পরিবাহিতা বলে। ওহমের সূত্র শুধু সাধারণ পরবাহী মেনে চলে;
অর্ধপরিবাহী যেমন জার্মেনিয়াম ও সিলিকন এগুলি দিয়ে তড়িৎ পরিবহন হলে এটি ওহমের সূত্র মেনে চলে না।

3.22 তড়িৎ পরিবাহিতা কাকে বলে? তড়িৎ একক কী?
=> রোধের অনোন্যককে তড়িৎ পরিবাহিতা বলে। এর SI একক হল
𝛀-1 বা mho বা siemens।

3.23 রোধের দৈর্ঘ্য ও প্রস্থচ্ছেদ সূত্র দুটি লেখ। এর গাণিতিক রূপটি লেখ।
=> দৈর্ঘ্যের সূত্র- পরিবাহীর উপাদান ও প্রস্থচ্ছেদ অপরিবর্তিত থাকলে পরিবাহীর রোধ দৈর্ঘ্যের সঙ্গে সমানুপাতী।
প্রস্থচ্ছেদের সূত্র- পরিবাহীর উপাদান ও দৈর্ঘ্য অপরিবর্তিত থাকলে পরিবাহীর রোধ তার প্রস্থচ্ছেদের ক্ষেত্রফলের সঙ্গে ব্যস্তানুপাতী।
পরিবাহীর দৈর্ঘ্য l ও প্রস্থচ্ছেদের ক্ষেত্রফল  A  হলে পরিবাহীর রোধ , R \propto l
এবং, R \propto \frac{1}{A}
সুতরাং   R= \rho \frac{l}{A}        [\rho কে পরিবাহীর রোধাঙ্ক বলে।]
আবার, পরিবাহীটির ব্যাসার্ধ   r হলে A = \pi r^2
সুতরাং R= \rho \frac{l}{\pi r^2}

3.24 রোধাঙ্ক কাকে বলে? রোধাঙ্কের SI একক কী?
=> একক দৈর্ঘ্যের কোন ঘনকাকার পরিবাহীর দুই বিপরীত প্রান্তের মধ্যবর্তী রোধকে ওই পরিবাহীর রোধাঙ্ক বলে। এর SI একক হল Ωm

3.25 রোধাঙ্কের মাত্রা নির্ণয় কর।
=> রোধাঙ্ক (ρ) এর একক =Ωm। তাহলে এর মাত্রা= রোধের মাত্রা ×দৈর্ঘ্যের মাত্রা = [ML^{2}T^{-3}I^{-2}.L]= [ML^{3}T^{-3}I^{-2}]

3.26 রূপার রোধাঙ্ক 1.59\times 10^{-6} \Omega.cm বলতে কী বোঝায়?
=> এর অর্থ হল, ঘরের উষ্ণতায় 1 cm দৈর্ঘ্যের একটি রূপার ঘনকের দুই বিপরীত প্রান্তের রোধ 1.59\times 10^{-6} \Omega

3.27 তামার রোধাঙ্ক 1.72\times 10^{-8} \Omega.m বলতে কী বোঝায়?
=> এর অর্থ হল, ঘরের উষ্ণতায় 1 m দৈর্ঘ্যের একটি তামার ঘনকের দুই বিপরীত প্রান্তের রোধ 1.59\times 10^{-8} \Omega

3.28 তড়িৎ পরিবাহিতাঙ্ক কাকে বলে? তড়িৎ একক কী?
=> রোধাঙ্কের অনোন্যককে তড়িৎ পরিবাহিতাঙ্ক বলে। এর SI একক হল
𝛀-1m-1 বা mho-1

3.29 রোধ ও রোধাঙ্কের মধ্যে পার্থক্য লেখ।
=> 

রোধরোধাঙ্ক
i) পরিবাহী দিয়ে তড়িৎ প্রবাহকালে যে বাঁধা সৃষ্টি হয় সেটি হলো রোধ।i) একক আয়তনের কোন পরিবাহীর দুই প্রান্তের রোধকে রোধাঙ্ক বলে।
ii) দৈর্ঘ্য ও প্রস্থচ্ছেদের পরিবর্তনে রোধ পরিবর্তিত হতে পারে। ii) কোন পরিবাহীর রোধাঙ্ক নির্দিষ্ট উষ্ণতায় অপরিবর্তিত থাকবে।
 iii) রোধের একক ওহম। iii) রোধাঙ্কের একক ওহম-সেমি

3.30 রোধ ও রোধাঙ্ক এর মধ্যে কোনটি বেশি মৌলিক? কেন?
=> রোধাঙ্ক বেশি মৌলিক। কারণ, অপরিবর্তিত উষ্ণতায় রোধের মান দৈর্ঘ্য ও প্রস্থ পরিবর্তনে পরিবর্তিত হতে পারে। কিন্তু রোধাঙ্কের সংজ্ঞা অনুযায়ী নির্দিষ্ট উষ্ণতায় এর মান একই থাকে।

3.31 ওহমীয় পরিবাহী ও অহমীয় পরিবাহী কাকে বলে?
=> যে সকল পরিবাহী ওহমের সূত্র মেনে চলে তাদের ওহমীয় পরিবাহী বলে। যেমন- সোনা, রুপা, তামা ইত্যাদি।
যেসকল পরিবাহী সূত্র মেনে চলে না তাদের অওহমীয় পরিবাহী বলে। যেমন- সিলিকন, জার্মেনিয়াম ইত্যাদি

3.32 অতি পরিবাহিতা কাকে বলে?
=> কিছু বিশেষ পদার্থ রয়েছে যাদের রোধাঙ্ক নির্দিষ্ট নিম্ন উষ্ণতায় অত্যন্ত নিম্ন (প্রায় শূন্য) হয়। পদার্থের এই ধর্মকে অতি পরিবাহিতা বলে। যেমন 4.2 K  তাপমাত্রায় পারদ এর রোধাঙ্ক শূন্যের কাছাকাছি পৌঁছায়।

3.33 পরিবাহীর সংকট তাপমাত্রা কাকে বলে?
=> যে উষ্ণতায় কিছু বিশেষ পরিবাহীর রোধাঙ্ক শূন্যের কাছাকাছি পৌঁছায়, সেই তাপমাত্রাকে ওই পরিবাহীর সংকট তাপমাত্রা বলে।

3.34 একটি তারের রোধ R একে টেনে মূল দৈর্ঘ্যের n গুণ করা হল তারের নতুন রোধ কত হবে ?
=>  ধরি তারের প্রাথমিক দৈর্ঘ্য l, প্রস্থচ্ছেদের ব্যাসার্ধ r ও রোধাঙ্ক ρ।
তাহলে রোধ, R=ρ \frac{l}{πr^2 } এবং আয়তন হবে πr^2 l
তারটি টেনে n গুন করলে দৈর্ঘ্য হবে l_1=nl
ধরি, টানার ফলে তারের ব্যাসার্ধ r_2 এবং আয়তন অপরিবর্তিত থাকলে,
πr_1^2 l_1=πr^2 l   or, πr_1^2 nl=πr^2 l     or, r_1^2=\frac{r^2}{n}
সুতরাং, নতুন রোধ R_1=ρ \frac{l_1}{πr_1^2}=ρ \frac{nl}{\frac{π r^2}{n}}=n^2 ρ \frac{l}{πr^2 }=n^2 R
অর্থাৎ নতুন রোধ প্রাথমিক রোধের n^2 গুন হবে।

 3.35 প্রমাণ কর, সমান্তরাল সমবায়ের তুল্য রোধ ক্ষুদ্র রোধের থেকেও ক্ষুদ্র।
=> ধরি, R1, R2, Rরোধগুলির সমান্তরাল সমবায়ে তুল্য রোধ R। আরও ধরি R1 সবচেয়ে ক্ষুদ্র।
তাহলে, \frac{1}{R}=\frac{1}{R_1}+\frac{1}{R_2}+\frac{1}{R_3}
or, \frac{1}{R}=\frac{1}{R_1}+X  [যেখানে,  X= \frac{1}{R_2}+\frac{1}{R_3}; অবশ্যই ধনাত্মক হবে]
or, \frac{1}{R}>\frac{1}{R_1}
or, R<R_1 (প্রমাণিত)

3.36 তড়িৎ প্রবাহের তাপীয় ফল সংক্রান্ত জুলের সূত্র গুলি বিবৃতি কর। অথবা জুলের তাপীয় ক্রিয়ার সূত্রগুলি লেখ।
=> 
i) প্রবাহমাত্রার সূত্র- পরিবাহীর রোধ (R) ও তড়িৎ প্রবাহের সময় (t) অপরিবর্তিত থাকলে পরিবাহীতে উৎপন্ন তাপ (H) প্রবাহমাত্রার(I) বর্গের সমানুপাতী।
H \propto I^2 ( R, t স্থির)
ii) রোধের সূত্র- পরিবাহীর প্রবাহমাত্রা ও সময় অপরিবর্তিত থাকলে পরিবাহীতে উৎপন্ন তাপ রোধের সমানুপাতী হয়।
H \propto R ( I, t স্থির)
iii) সময়ের সূত্র- পরিবাহীর প্রবাহমাত্রা ও রোধ অপরিবর্তিত থাকলে পরিবাহীতে উৎপন্ন তাপ সময়ের সমানুপাতী  হয়।
H \propto t  ( I, R স্থির)

3.37 জুলের সূত্রের গাণিতিক রূপটি প্রতিষ্ঠা কর।
=> t সময়ে Q আধান R রোধ দিয়ে প্রবাহিত হলে প্রবাহমাত্রা I =\frac{Q}{t}..... (1)
আবার, ওহমের সূত্র অনুযায়ী বিভব V= IR…..  (2)
এতে কৃতকার্য W=VQ= VIt   [ (1) নং সমীকরণ অনুযায়ী ]
= IR.It [ (2) নং সমীকরণ অনুযায়ী ]
= I^2 Rt……  (3)
তাপ ও কার্যের তুল্যতা থেকে জানা যায় W পরিমাণ কার্য H তাপে রূপান্তরিত হলে
W=JH   [J = যান্ত্রিক তুল্যাঙ্ক]
or, H=\frac{W}{J}
or, H=\frac{I^2 Rt}{J} [ (3) নং সূত্র অনুযায়ী ]

3.38 তড়িৎ প্রবাহের সময় অপরিবর্তিত রেখে প্রবাহমাত্রা অর্ধেক করা হলে উৎপন্ন তাপের অনুপাত নির্ণয় কর।
=> t সময়ে R রোধ দিয়ে I তড়িৎ প্রবাহ হলে উৎপন্ন তাপ H = I^2Rt (SI এককে)। প্রবাহমাত্রা \frac{I}{2} হলে ওই সময়ে ওই পরিবাহী দিয়ে উৎপন্ন তাপ H_1={(\frac{I}{2})}^2Rt=\frac{I^2}{4}Rt। উৎপন্ন তাপের অনুপাত H:H_1=I^2 Rt:\frac{I^2}{4}Rt=1:\frac{1}{4}=4:1

3.39 200V-100W কথাটি একটি বাল্বে লেখা আছে- এর অর্থ কী?
কথাটির অর্থ হলো বাল্বটিকে যদি 200 V বিভবের সঙ্গে যুক্ত করা হয় তবে বাল্বটি সর্বোচ্চ উজ্জ্বলতায় জ্বলতে থাকবে। এই অবস্থায় বাল্বটি প্রতি সেকেন্ডে 100J তড়িৎ শক্তি ব্যয় করবে।

3.40 আর্থিং কাকে বলে? এর প্রয়োজনীয়তা লেখো।
=> গৃহস্থলীর বৈদ্যুতিক যন্ত্রপাতি নিরাপদ রাখার জন্য যন্ত্রের দেহ থেকে একটি তার ভূমিস্থ করা হয়। যদি কোনো কারণে বৈদ্যুতিক যন্ত্র তড়িৎগ্রস্থ হয়ে পড়ে তাহলে সেই যন্ত্র স্পর্শ করলে শক লাগার সম্ভাবনা থাকে। বৈদ্যুতিক যন্ত্রের সঙ্গে আর্থিং ব্যবস্থা থাকলে অতিরিক্ত তড়িৎ আর্থিং তার দিয়ে মাটিতে চলে যায় এবং বিপদের সম্ভাবনা কমে যায়।

3.41 অ্যাম্পিয়ারের সন্তরণ নিয়মটি বিবৃতি কর।
=>  ধরি, কোনো ব্যক্তি তড়িৎবাহী তারের উপর দিয়ে তড়িৎ প্রবাহের অভিমুখে হাত ছড়িয়ে এমনভাবে সাঁতার কাটে যাতে তার মুখ সর্বদা তারের নীচে রাখা চুম্বক শলাকার উত্তর মেরুর দিকে থাকে;  তবে সেই ব্যক্তির বাম হাত যেদিকে সরবে শলাকার উত্তর মেরু সেই দিকে বিক্ষিপ্ত হবে।

3.42 দক্ষিণ হস্ত-মুষ্টি সূত্র বিবৃতি কর।
=> একটি তড়িৎবাহী তারকে ডান হাত দিয়ে যদি এমনভাবে মুষ্টি করা যায় যাতে বুড়ো আঙ্গুল তড়িৎ প্রবাহের অভিমুখ নির্দেশ করে তবে অন্যান্য আঙ্গুলগুলির অগ্রভাগ তারের চারপাশে উৎপন্ন চৌম্বকক্ষেত্রের (চৌম্বক বলরেখার) অভিমুখ নির্দেশ করবে।

3.43 ফ্লেমিং এর বাম হস্ত নিয়ম বিবৃতি কর।
=>

ফ্লেমিং-এর বাম হস্ত নীতি-চল তড়িৎ-দশম শ্রেণি
ফ্লেমিং-এর বাম হস্ত নীতি

বাম হাতের তর্জনী বৃদ্ধাঙ্গুল ও মধ্যমা পরস্পরের সমকোণী রেখে যদি তর্জনী চুম্বক ক্ষেত্র ও মধ্যমা তড়িৎ প্রবাহের অভিমুখ নির্দেশ করে তাহলে বৃদ্ধাঙ্গুল ওই তারের উপর ক্রিয়াশীল বলের অভিমুখ নির্দেশ করবে।

3.44 তড়িৎচুম্বকীয় আবেশ সংক্রান্ত লেঞ্জের সূত্রটি লেখ।
=> তড়িৎ চুম্বকীয় আবেশের ক্ষেত্রে বদ্ধ কুন্ডলীতে তড়িৎচালক বল যে কারণে সৃষ্টি হয় তড়িৎ প্রবাহ এমন দিকে হবে যে সেটি তার ৎসের কারণ কে বাঁধা দেয়

3.45 লেঞ্জের সূত্র শক্তির সংরক্ষণ সূত্রের বিকল্প রূপ’- ব্যাখ্যা করো।
=> শক্তিকে সৃষ্টি বা ধ্বংস করা যায় না শক্তি এক রূপ থেকে অন্য রূপে রূপান্তরিত হতে পারে। অন্যদিকে, লেঞ্জের সূত্র অনুযায়ী বদ্ধ কুন্ডলীতে  আবিষ্ট তড়িৎপ্রবাহের অভিমুখ এমন দিকে হবে যা তার সৃষ্টির কারণকে বাঁধা দেবে। ধরি, একটি কুন্ডলীর দিকে চুম্বকের উত্তর মেরু এগোচ্ছে। এই চুম্বকের এগোনোকে বাঁধা দেওয়ার জন্য কুন্ডলীতে তড়িৎ প্রবাহ ঘড়ির কাঁটার বিপরীতে সৃষ্টি হয়; যা চুম্বকের উত্তর মেরু থেকে দেখলে উত্তর মেরুই মনে হয়। এই দুই সমমেরু পরস্পরের কাছাকাছি আসতে বাঁধা পাবে। এই বাঁধার বিরুদ্ধে যে কার্য করতে হয় তাই কুন্ডলীতে তড়িৎ শক্তি সৃষ্টি করবে।

3.46 জলবিদ্যুৎ উৎপাদনের ভিত্তিগত কৌশল সংক্ষেপে লেখ।
=> জলবিদ্যুৎ উৎপাদনের জন্য প্রথমে উচু কোনো স্থানে জলাধারে জল সঞ্চিত করে রাকা হয়। তারমানে জলে স্থিতি শক্তি জমা আছে। এবারে সেই জল কোনো পাইপ বা নলের সাহায্যে প্রেরণ করলে জলের স্থিতিশক্তি গতিশক্তিতে রূপান্তরিত হয়। গতিশীল জলের ধারায় যদি কোনো টারবাইন বা ডায়নামো রাখা হয় তবে সেই টারবাইনের ভিতরের কুন্ডলী ঘুরতে শুরু করবে। এর জন্য আবিষ্ট তড়িৎ প্রবাহ সৃষ্টি হবে।

4. চল তড়িৎ-দশম শ্রেণি- গাণিতিক প্রশ্ন

4.1 10 Ω রোধের একটি তারকে সমান দুই টুকরো করে সমান্তরাল সমবায়ে যুক্ত করলে তুল্য রোধ কত হবে?
=> প্রতি টুকরোর রোধ, \frac{10\;\Omega}{2}=5Ω
এদের সমান্তরাল সমবায়ে যুক্ত করলে তুল্য রোধ R হলে,
\frac{1}{R}=\frac{1}{5}+\frac{1}{5}
or, \frac{1}{R}=\frac{2}{5}
or, R=\frac{5}{2}=2.5 Ω

4.2 দুটি রোধের শ্রেণীতে ও সমান্তরালে তুল্য রোধ 12 Ω ও \frac{5}{3}Ω হলে, রোধ দুটি কত?
=> ধরি, রোধগুলি  R_1R_2 (R_1>R_2)
R_1+R_2=12     (1)
or, \frac{1}{{R}_{1}} + {\frac{1}{R}}_{2} = \frac{3}{5}
or,  \frac{R_2+R_1}{R_1 R_2}=\frac{3}{5}
or, \frac{12}{R_1 R_2}=\frac{3}{5}
or,  R_1 R_2=\frac{12 \times 5}{3}
or, R_1 R_2=20
or, \frac{(R_1+R_2)^2}{4}  -\frac{(R_1-R_2)^2}{4}=20
or,\frac{12^2}{4}-\frac{(R_1-R_2)^2}{4}=20
or, 36-\frac{(R_1-R_2)^2}{4}=20
or, \frac{(R_1-R_2)^2}{4}=36-20
or, (R_1-R_2)^2=4\times16
or,R_1-R_2=2×4=8       (2)
(1)+(2) করে পাই, 2R_1=20  \therefore R_1=10Ω
(1) নং সমীকরণে R_1 এর মান বসাই
12+R_2=20
or, R_2=20-12=8Ω

4.3 একটি কোশের তড়িৎচালক বল 2 ভোল্ট। একে 15 ওহম রোধের সাথে যুক্ত করলে বিভব পার্থক্য হয় 1.5 ভোল্ট। কোশটির নষ্ট ভোল্টের মান কত ও তড়িৎ প্রবাহ মাত্রার মান কত?

=> IR=1.5  or, I\times15=1.5      or, I=\frac{1.5}{15}A=0.1A (Ans.)
আবার, E=I(R+r)
or,  E=IR+Ir
or,  2=1.5+Ir
or, Ir=2-1.5=0.5 V = নষ্ট ভোল্ট (Ans.)

4.4 1.08 ভোল্ট EMF -এর একটি তড়িৎকোশকে কোনো বর্তনীতে যুক্ত করলে 0.5 A  প্রবাহমাত্রা চলে এবং বহিঃবর্তনীর রোধের প্রান্তীয় বিভব প্রভেদ 0.78  ভোল্ট হয়।  তড়িৎকোশের অভ্যন্তরীণ রোধ কত?
=> E=1.08 volt,     I=0.5 A,     V=0.78 volt,    r=??
আমরা জানি, E=V+Ir
or, 1.08=0.78+0.5r
or, o.5r=1.08-0.78
or, r=\frac{0.3}{0.5}=6Ω

4.5 4Ω, 6Ω ও 8Ω রোজ তিনটিকে শ্রেণী সমবায় যুক্ত করে তাদের দুই প্রান্তে 18 volt বিভব প্রয়োগ করলে প্রতি তারে প্রবাহমাত্রা কত?
=> শ্রেণি সমবায়ে তুল্য রোধ= R= (4+6+8)Ω=18 Ω। শ্রেণি সমবায়ে প্রতিটি তারে একই তড়িৎ প্রবাহিত হবে। এর মান,I=\frac{V}{R}=\frac{18}{18}A=1A

4.6 200V-400W ও 200V-800W এই এই দুটি বৈদ্যুতিক বাতির কোনটির ফিলামেন্ট বেশি মোটা?
=> R=\frac{V^2}{P}
\therefore R_1:R_2= \frac{V^2}{P_1}:\frac{V^2}{P_2}=\frac{200^2}{400}:\frac{200^2}{800}= 1:\frac{1}{2}=2:1
প্রথম বাতিটির রোধ বেশি। কিন্তু তারের প্রস্থচ্ছেদের ক্ষেত্রফল বৃদ্ধি পেলে রোধ কমে(R \propto \frac{1}{A})। সুতরাং, দ্বিতীয় বাতিটির মোটা বেশি।

4.7 220V-60W ও 110V-60W দুটি বাতির রোধের অনুপাত কত?
=> রোধ R=\frac{V^2}{P}
রোধের অনুপাত  R1:R2
=\frac{V_1^2}{P_1}:\frac{V_1^2}{P_1}:
=\frac{220^2}{60}:\frac{110^2}{P_1}:
=22×22:11×11
=4:1

4.8 একটি বাড়িতে দুটি 60W বাতি এবং দুটি 80W পাখা আছে । বাতি ও পাখা গুলি যথাক্রমে দৈনিক 5 ঘন্টা ও 10 ঘন্টা ধরে চলে।  প্রতি ইউনিটের দাম 4 টাকা হলে এক মাসে কত খরচ হবে?
=>

বৈদ্যুতিক যন্ত্রসংখ্যা(n)ক্ষমতা(P) [W এককে]দৈনিক চলার সময়(t) [h এককে]দৈনিক শক্তি ব্যয়(nPt) [Wh এককে]
বাতি26052×60×5=600
পাখা280102×80×10=1600

দৈনিক মোট শক্তি ব্যয়= (600+1600) W=2200 W।
মাসে মোট শক্তি ব্যয় 2200 W×30 h=66000 Wh=6.6 kWh=66 BOT
66 BOT এর দাম= 66×4 টাকা=264 টাকা

4.9 220V-60W ও 220V-40W দুটি বালবকে 220V এর সঙ্গে সমান্তরালে যুক্ত করলে কোন বালবটি অধিকতর উজ্জ্বলতায় জ্বলবে?
=> চল তড়িৎ-দশম শ্রেণি 220V-60W ও 220V-40W দুটি বালবকে 220V এর সঙ্গে সমান্তরালে যুক্ত করলে কোন বালবটি অধিকতর উজ্জ্বলতায় জ্বলবে?
বালব দুটি সমান্তরাল সমবায়ে থাকায় উভয় বালবেই বিভব থাকবে 220V। সেজন্য দুটি বালব সর্বোচ্চ ক্ষমতায় চলবে। তাই এক্ষেত্রে 60W সম্পন্ন বালবটি বেশি উজ্জ্বলতায় জ্বলবে।

 4.10 220V-60W ও 220V-40W দুটি বালবকে 220V এর সঙ্গে শ্রেণি সমবায়ে যুক্ত করলে কোন বালবটি অধিকতর উজ্জ্বলতায় জ্বলবে?
=> 220V-60W ও 220V-40W দুটি বালবকে 220V এর সঙ্গে শ্রেণি সমবায়ে যুক্ত করলে কোন বালবটি অধিকতর উজ্জ্বলতায় জ্বলবে?60W=P1, 40W=P2, 220volt= V
বালব দুটি শ্রেণি সমবায়ে থাকায় উভয় বালব দিয়ে সমপরিমাণ তড়িৎ প্রবাহ যাবে।
60W ক্ষমতার বলবের রোধ R1= \frac{V^2}{P_1}Ω
40W ক্ষমতার বলবের রোধ R2= \frac{V^2}{P_2}Ω
তুল্য রোধ ,R=(\frac{V^2}{P_1}+\frac{V^2}{P_2})Ω=V^2(\frac{1}{P_1}+\frac{1}{P_2})Ω=V^2(\frac{P_2+P_1}{P_1P_2})Ω
প্রবাহমাত্রা I=\frac{V}{R}=\frac{V}{V^2(\frac{P_2+P_1}{P_1P_2})}Ω=\frac{P_1P_2}{V(P_1+P_2)}
শ্রেণি সমবায়ে 60W ক্ষমতা সম্পন্ন বালবটির ক্ষমতা হবে I^2R_1=\frac{P_1^2P_2^2}{V^2(P_1+P_2)^2}.\frac{V^2}{P_1}=\frac{P_1P_2^2}{(P_1+P_2)^2}=P1'
শ্রেণি সমবায়ে 40W ক্ষমতা সম্পন্ন বালবটির ক্ষমতা হবে I^2R_2=\frac{P_1^2P_2^2}{V^2(P_1+P_2)^2}.\frac{V^2}{P_2}=\frac{P_1^2P_2}{(P_1+P_2)^2}=P2'
এখন, P1' : P2'=\frac{P_1P_2^2}{(P_1+P_2)^2}:\frac{P_1^2P_2}{(P_1+P_2)^2}=P_2:P_1=40:60=2:3
∴40W বালবটি বেশি উজ্জ্বলতায় জ্বলবে।

SHARE

Related Posts

বায়ুমন্ডলের বিভিন্ন স্তর

NOTES- পরিবেশের জন্য ভাবনা দশম শ্রেণি-CLASS 10

পরিবেশের জন্য ভাবনা দশম শ্রেণি 1. বায়ুমন্ডলের গঠন- I.  ট্রপোস্ফিয়ার- বায়ুমন্ডলের সবচেয়ে নীচের স্তর। 78% N2, 21% O2, 0.04% CO2 বর্তমান। রোদ, ঝড়, বৃষ্টি এখানেই হয়। তাই এর…

অ্যাসিটিলিনের চিত্র- জৈব রসায়ন Class 10

জৈব রসায়ন Class 10-ভৌত বিজ্ঞান

1.1 R—CHO যৌগ একটি- a) অ্যালডিহাইড        b) অ্যালকোহল               c)অ্যাসিড              d) কিটোন সঠিক উত্তর-…

ধাতুবিদ্যা

ধাতুবিদ্যা Class 10 প্রশ্ন উত্তর

ধাতুবিদ্যা-সঠিক উত্তরটি বেছে নাও 1.1 কোন লোহায় কার্বনের পরিমাণ সর্বাধিক?    a) কাস্ট আয়রন       b) রট আয়রন      c) স্টিল      d) কাঁচা…

অ্যামোনিয়া প্রস্তুতির হেবারের পদ্ধতি

পরীক্ষাগার ও রাসায়নিক শিল্পে অজৈব রসায়ন Class 10

অ্যামোনিয়া 1.1 অ্যামোনিয়া থেকে নাইট্রিক অ্যাসিড প্রস্তুতির শিল্প পদ্ধতিকে বলে-    a) হেবার পদ্ধতি        b) অসওয়াল্ড পদ্ধতি           c) লা-ব্ল্যাংক পদ্ধতি   …

আয়নীয় ও সমযোজী বন্ধন

1.1 LiH অণুতে  Li এবং H কোন নোব্‌ল গ্যাসের ইলেকট্রন বিন্যাস লাভ করে?     a) Ne          b) He        c) Ar   …

কপার সালফেটের তড়িৎবিশ্লেষণ- তড়িৎ প্রবাহ ও রাসায়নিক বিক্রিয়া

তড়িৎ প্রবাহ ও রাসায়নিক বিক্রিয়া

1.1 দ্রবণের মধ্যে তড়িৎ পরিবহণ করে দ্রবণে উপস্থিত-        a) কেবলমাত্র ক্যাটায়ন            b) ইলেকট্রন              c)…

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!